??????? ?????????? ২৮ জুলাই, ২০১৯ ১২:২৩

অকেজো মোবাইল থেকে বানানো হলো টোকিও অলিম্পিকের পদক

অলিম্পিক গেমসকে সারা বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদা সম্পন্ন খেলার আসর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। এই আসরে বিশ্বের সব জনপ্রিয় খেলাগুলো স্থান পেয়ে থাকে। পরবর্তী অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হবে ২০২০ সালে টোকিওতে। আগামী বছর অনুষ্ঠিত হওয়া এই প্রতিযোগিতাটি নিয়েই এখন থেকেই নানান প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। প্রতি চার বছর পরপর অনুষ্ঠিত হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া আসরটি। এই প্রতিযোগিতায় যারা প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হয়ে থাকে তাদের দেওয়া হয় যথাক্রমে সোনা, রূপা এবং ব্রোঞ্জের পদক। টোকিও অলিম্পিকের পদক বানানোর ক্ষেত্রে বেশ বড়সড় একটি চমকই দিল অলিম্পিক কমিটি।

২০২০ সালের অলিম্পিক প্রতিযোগিতার পদকগুলো বানানো হয়েছে ৬০ লাখ রিসাইকেল করা ফোন দিয়ে। ঘোষণাটি এসেছিল ২০১৭ সালেই। সে বছর বলা হয়েছিল টোকিও অলিম্পিকের পদক তৈরির ক্ষেত্রে থাকছে চমক। তবে কী ধরনের চমক তা তখনও স্পষ্ট করে বলা হয়নি।

 

আশি হাজার টন পুরনো মোবাইল থেকে তৈরি করা হয়েছে এসব পদক। এরসাথে যোগ করা হয়েছিল পুরনো বাতিল হয়ে যাওয়া নানান ইলেকট্রিক যন্ত্রপাতিও। সোনা, রূপা এবং ব্রোঞ্জের এসব পদকের ওজন ৪৫০ গ্রাম থেকে ৫৫৬ গ্রাম পর্যন্ত হবে বলে জানিয়েছে অলিম্পিক আয়োজক কমিটি।

 

বর্তমানে বিশ্বের প্রধানতম একটি যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে মোবাইল ফোল। এই যন্ত্রটির মধ্যে থাকা ধাতব সার্কিটে নানা রকম দামি ধাতু ব্যবহার করা হয়। এরমধ্যে সোনা, রূপা এবং ব্রোঞ্জও রয়েছে। এসব ধাতু আলাদা করে প্রক্রিয়াজাত করে তারপর তা দিয়ে অলিম্পিকের জন্য পদক বানানো হয়েছে। এই কাজটি করতে দুই বছর সময় লেগেছে। ১৩০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ২১০০ ইলেকট্রনিক্সের দোকান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে এত বিপুল পরিমাণ মোবাইল। আর তা থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৩০ কিলোগ্রামের বেশি সোনা, ৪১০০ কিলোগ্রাম রূপা এবং ২৭০০ কিলোগ্রাম ব্রোঞ্জ।