??????? ?????? ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৬:৪৩

সাংবাদিকতার আড়ালে চাঁদাবাজি, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাংবাদিকতার আড়ালে চাঁদাবাজিই ছিল তাদের মূল পেশা। এই নামধারী সাংবাদিকেরা একের পর এক ইটভাটায় গিয়ে  চাঁদার জন্য হুমকি দেন। চাহিদামতো চাঁদা না পেলে তাদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের হুমকি দিতেন। এমন খবরের ভিক্তিতে চাঁদাবাজির দায়ে দুই নারীসহ ৫ কথিত 'সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ত

আজ মঙ্গলবার চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার(রাঙ্গুনিয়া-রাউজান সার্কেল) মো. আনোয়ার হোসেনের নিজস্ব ফেইসবুক পেজে ঘটনাটি লিখে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তার ফেইসবুক পেজের লেখাটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

ওরা ৫ জন!

গাড়িতে টিভি চ্যানেলের স্টিকার সাঁটানো। গলায় ঝোলানো নামজাদা সব পত্রিকার আইডি কার্ড। বেশভূষায় একেকজনকে কেতাদুরস্ত সাংবাদিক মনে হলেও সংবাদকর্মীর সাইনবোর্ডের আড়ালে চাঁদাবাজিই তাদের মূল পেশা। এই নামধারী সাংবাদিকেরা একের পর এক ইটভাটায় গিয়ে হুমকি দিচ্ছেন, চাহিদামতো টাকা না দেওয়া হলে তাদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করে বিপদে ফেলে দিবেন! সকল ভাটা মালিক চুপচাপ টাকা দিয়ে নিরাপদ ব্যবসায় নিশ্চিত করলেও একজন সাহস করে বিষয়টি আমাদেরকে জানিয়েছিলেন।ফলাফল? চাঁদাবাজির দায়ে দুই নারীসহ ৫ কথিত 'সাংবাদিক' কে গ্রেপ্তার করেছি আমরা। জব্দ করা হয়েছে চাঁদাবাজির কাজে ব্যবহৃত তাদের মাইক্রোবাসটিকেও। অন্যকে বিপদে ফেলতে এসে আজ তারা নিজেরাই কঠিন বিপদে।

সবার নিকট অনুরোধ রইলো,  চাঁদাবাজ সে যত প্রভাবশালীই হোক না কেন, ভয় পেয়ে তার অন্যায় মেনে নেওয়ার আগে একবার অন্তত আমাদেরকে জানান। দেখুন কাজ হয়, নাকি হয় না। আস্থা রাখুন পুলিশে।

(মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে একালের করোনা যুদ্ধ পর্যন্ত জাতির প্রতিটি ক্রান্তিকালে যেসব পেশাজীবীদের গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা, সংবাদকর্মীরা তাদের মধ্যে প্রথম সারিতেই থাকবেন। সেই সাংবাদিকতা পেশার সম্মান রক্ষায় সামান্য ভূমিকা রাখতে পেরে ভীষণ ভাল লাগছে।)