অর্থ ও বাণিজ্য ৩ নভেম্বর, ২০২০ ০৩:১৯

একনেকে শুটকি প্রকল্প অনুমোদন

ডেস্ক রিপোর্ট

কক্সবাজার জেলায় ১৯৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয়ে শুটকি প্রক্রিয়াকরণ শিল্প স্থাপনসহ দুই হাজার ৪৫৯ কোটি ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে চারটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এসব প্রকল্পে সরকার দেবে ১ হাজার ৬৬৯ কোটি ৩১ লাখ টাকা। আর সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ১৮২ কোটি ১৪ লাখ এবং বিদেশি ঋণ ৬০৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় এসব প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এবং শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী/সচিবরা একনেক সভায় অংশ নেন।

সভা শেষে পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম সাংবাদিকদের সামনে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।

আজকের অনুমোদিত প্রকল্পগুলোর তথ্য তুলে ধরে পরিকল্পনা সচিব জানান, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১৯৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয়ে কক্সবাজার জেলায় শুটকি প্রক্রিয়াকরণ শিল্প স্থাপন প্রকল্প; পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ৫৬০ কোটি ৭ লাখ টাকা ব্যয়ে যমুনা নদীর ডানতীর ভাঙন হতে সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলাধীন সিংড়াবাড়ী, পাটগ্রাম ও বাওইখোলা এলাকা সংরক্ষণ প্রকল্প।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৫৫১ কোটি ৫১ লাখ টাকা ব্যয়ে পাঁচদোনা-ডাঙ্গা ঘোড়াশাল মহাসড়কে একস্তর নিচু দিয়ে উভয় পার্শ্বে পৃথক সার্ভিস লেনসহ ৪ লেনে উন্নীতকরণ (ডাঙ্গা বাজার ইসলামপুর লিংকসহ) (১ম সংশোধিত) প্রকল্প এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১ হাজার ১৪৮ কোটি ৭৮ লাখ টাকা ব্যয়ে আমিনবাজার মাওয়া-মংলা ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন (১ম সংশোধিত) প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়।

একনেক সভায় কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এবং পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক সভার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়াও সভায় মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।