মুক্তিযুদ্ধ ২৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১০:১১

সংবিধানে ‘মুক্তিযুদ্ধ-মুক্তিযোদ্ধা’ যোগ করার দাবি

ডেস্ক রিপোর্ট ।। 

সংবিধানে ‘মুক্তিযুদ্ধ’ ও ‘মুক্তিযোদ্ধা’ শব্দ দুটি অন্তর্ভুক্ত করে মুক্তিযোদ্ধাদের সাংবিধানিক ও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতিসহ ১৩টি দাবি জানিয়েছে ‘একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা’ নামে একটি সংগঠন।

এসব দাবিতে মুক্তিযোদ্ধাদের এ সংগঠনের আয়োজনে রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করা হয়।

শতাধিক মুক্তিযোদ্ধার অংশ গ্রহণে মানববন্ধন শেষে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি হাই কোর্টের কদম ফোয়ারা ঘুরে পল্টন মোড় হয়ে আবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।

মানববন্ধনে একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা সংগঠনের সভাপতি মো. রুস্তম আলী মোল্লার সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কামাল আহমেদসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধারা বক্তব্য দেন।

এ সময় মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলী বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন।

মুক্তিযোদ্ধাদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি নিশ্চিত করা ছাড়াও মানববন্ধনে সরকারের সব তালিকা থেকে ‘অমুক্তিযোদ্ধাদের’ চিহ্নিত করে তাদের বাতিল এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক তালিকা চূড়ান্ত করে প্রকাশ এবং এর জন্য কমিশন গঠনের দাবি জানান তিনি।

এছাড়া মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও পোষ্যদের সকল শ্রেণির সরকারি চাকরিতে বঙ্গবন্ধুর প্রদত্ত কোটা পুনর্বহাল, মুক্তিযোদ্ধাদের পৃথক রাষ্ট্রীয় পরিচয়পত্র প্রদান, সম্মানী ভাতা দ্রব্যমূল্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বৃদ্ধিকরণ, মুক্তিযোদ্ধাদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সুবিধা প্রদান, স্থায়ী আবাসনের ব্যবস্থা এবং সহজ শর্তে আবাসন ঋণ প্রদান, মুক্তিযোদ্ধানের স্বল্পকালীন অবস্থানের জন্য ঢাকায় মুক্তিনিবাস চালুকরণ, ‘জয় বাংলাকে’ রাষ্ট্রীয় শ্লোগানের স্বীকৃতি, সারাদেশে একাত্তরের বধ্যভূমি ও গণকবরগুলো চিহ্নিত ও সংরক্ষণ এবং একাত্তরের রাজাকার, আলবদর-আলশামস, শান্তি কমিটি, যুদ্ধাপরাধী ও মুক্তিযোদ্ধের বিরোধিতাকারীদের তালিকা প্রণয়ন ও তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার বাদী জানানো হয় মানববন্ধনে।