অর্থ ও বাণিজ্য ৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০৯:৩৯

বড় ঠিকাদারিরা যেন বারবার কাজ না পায় : প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট ।।

উন্নয়ন প্রকল্পের স্বার্থে নতুন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে কাজ পাওয়ার সুযোগ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, টেন্ডার ডকুমেন্ট এমনভাবে তৈরি করা যাবে না, যাতে বড় বড় কোম্পানি বারংবার কাজ পায়। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইনটাও একটু সহজ করতে হবে, যাতে করে নতুনরাও ঢুকতে পারে, প্রতিযোগিতা হয়।

মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী এসব নির্দেশনা দেন। সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে তুলে ধরেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন সহজ করার কাজ চলছে। এটা হয়ে গেলে নতুন নতুন প্রতিযোগিতা হবে এবং নতুন ঠিকাদাররা ঢোকার সুযোগ পাবে।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধ…ত করে এম এ মান্নান বলেন, ‘আগ্রহ নিয়ে প্রায়ই প্রকল্প পাস করা হয়, দালানকোঠা নির্মাণ করা হয়। তারপরে আর বাকি কাজ হয় না। হয় জনবল নেই, নয় যন্ত্রবল  নেই। যে আগ্রহ নিয়ে আপনারা প্রকল্পের কাজ শেষ করেন, একই আগ্রহ নিয়ে আপনারা (সংশ্লিষ্টরা) দয়া করে বাকি কাজগুলো করবেন। যাতে জনগণ যে সেবা পাওয়ার কথা, সেখান থেকে সেটা তারা পায়।’

এ বিষয়ে নিজের বক্তব্য তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘এটা প্রধানমন্ত্রীর পর্যবেক্ষণ। এটার সঙ্গে আমি শতভাগ একমত। আমার নিজ এলাকায় এ রকম কিছু স্থাপনা আছে। তড়িঘড়ি করে স্থাপনার কাজ শেষ করা হয়েছে, তারপরে আর কাজ হয় না।’

সভায় প্রধানমন্ত্রী নতুন সড়ক নির্মাণের চেয়ে সড়ক মেরামত, মান-উন্নয়নের দিকে মনোযোগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান এম এ মান্নান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এখন থেকে সাবধানতার সঙ্গে সড়কের কাজ করার তাগিদ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী মনে করেন, নতুন সড়ক নেওয়ার আগে আমাদের চিন্তা করতে হবে। যেসব সড়ক আমাদের আছে বিশেষ করে আন্তঃজেলা সড়ক, এগুলোকে আমরা বিশ্বমানের না হলেও আঞ্চলিক মানের করতে চাই। চার লেন করতে চাই, পুরু করতে চাই, যাতে সামান্য বৃষ্টিতে না ভেঙে যায়। এজন্য এখন থেকে আমাদের মনোযোগ থাকবে সড়কের উন্নয়ন ও মেইনটেন্যান্সের দিকে। নতুন সড়ক নেব না, তা বলছি না। খুব সাবধানতার সঙ্গে নেওয়া হবে। আর বর্তমানগুলোকে আমরা উন্নত করব। এটা সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত।’

সভায় খুলনা-যশোর সড়ক নির্মাণ প্রকল্প নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের কাজটি দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান এম এ মান্নান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন,খুলনা-যশোর সড়কটা তার কাছে খুবই বিরক্তিকর একটা সড়ক। দীর্ঘদিন ধরে এই সড়কের কাজ ফেলে রাখা হয়েছে। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেন, ওবায়দুল কাদেরসহ এটার সঙ্গে যারা যারা আছেন, সবাই এটার কাজ তাড়াতাড়ি শেষ করেন। মানুষের অনেক বেশি কষ্ট হচ্ছে।’