অর্থ ও বাণিজ্য ১ নভেম্বর, ২০১৯ ০৭:৫১

পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম কমলেও কমেনি খুচরা বাজারে

ডেস্ক রিপোর্ট।। 

রাজধানীর পাইকারি বাজারে গতকালের চেয়ে আজ সব ধরণের পেঁয়াজ কেজিতে ২ থেকে ৫ টাকা দাম কমেছে। তবে খুচরা বাজারে এর প্রভাব পড়েনি।

শুক্রবার সকালে, কারওয়ান বাজার ঘুরে দেখা গেছে- পাইকারিতে দেশি পেঁয়াজ মানভেদে বিক্রি হচ্ছে ১২৫ থেকে ১২৮ টাকা। ভারতের পেঁয়াজ ১২০ থেকে ১২৫ টাকা এবং ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে মিয়ানমারের পেঁয়াজ। কারওয়ানবাজারে খুচরা দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৪২ টাকা। চড়া দামের কারণে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ক্রেতারা।

এদিকে, পেঁয়াজের ঝাঁঝের সাথে চট্টগ্রামের বাজারগুলোতে বেড়ে চলেছে পেঁয়াজের দাম। আজও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে নিত্য প্রয়োজনীয় এই পন্যটি।

খুচরা বাজারে ভারতীয় পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়। ১২৫ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে মিয়ানমারের পেঁয়াজ। আজ খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজার বন্ধ থাকলেও বৃহস্পতিবার সেখানে ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছিলো ১১০ থেকে ১২০ টাকায়। মিয়ানমারের পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছেল ১১০ টাকায়।  

চট্টগ্রামের একটি শিল্প প্রতিষ্ঠান মিসর থেকে ৫০ হাজার টনের বড় একটি চালান আমদানির ঋণপত্র খুলেছে। এই সপ্তাহের মধ্যে এই চালানটি দেশে এসে পৌঁছানোর পর পেঁয়াজের দাম অনেকটা কমে আসবে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

ক্রেতাদের অভিযোগ, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের সময় পেঁয়াজের দাম কমলেও পরেই আবার চড়া দামে পেঁয়াজ বিক্রি করেন বিক্রেতারা

এদিকে, ইলিশ এক কেজির ওপরে ৮৫০ টাকা এবং এক কেজির নিচে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে রাজধানীর বাজারে। বিক্রেতারা জানিয়েছেন- বাজারে প্রচুর ইলিশের সরবরাহ আছে। বড় ইলিশের বেশিরভাগই ডিমওয়ালা।