সোশ্যাল মিডিয়া ৩১ অক্টোবর, ২০১৯ ০৩:৫৬

বিজিবি'র হাতে তিন ভারতীয় নাগরিক আটক

ডেস্ক রিপোর্ট ।। 

ফেনীর পরশুরাম সীমান্ত দিয়ে পাসপোর্ট-ভিসা ছাড়াই বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অভিযোগে এক নারীসহ তিনজন ভারতীয় নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এখন বিএসএফও তাদের ফেরত নিতে রাজি নয়।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন বিধান চন্দ্র দাশ (৪৪), তাঁর স্ত্রী স্বপ্না বালা দাশ (৩৫) ও ছেলে নিলয় চন্দ্র দাশ (১৩)। তাঁরা ভারতের আসাম রাজ্যের গোলাঘাট জেলার ধনশিবি মহকুমার চুঙাজান থানার কিয়াজু গাও এর বাসিন্দা।
গত মঙ্গলবার ফেনীর পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন সত্যনগর গ্রাম থেকে বিজিবির সুবার বাজার সীমান্ত ফাঁড়ির জোয়ানরা তাঁদের আটক করেন। আজ বুধবার বিজিবির সুবার বাজার সীমান্ত ফাঁড়ির নায়েব সুবেদার কমলেশ চন্দ্র রায় বাদী হয়ে পরশুরাম মডেল থানায় একটি মামলা করেন। পরে বিধান ও স্বপ্নাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এবং নিলয়কে গাজীপুরে কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠাতে বলা হয়েছে।

ফেনীর ৪ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. নাহিদুজ্জামান জানান, নারী শিশুসহ তিনজন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর কোম্পানী কমান্ডার পর্যায়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফকে বিষয়টি জানানো হয় এবং তিন ভারতীয় নাগরিককে সে দেশে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু বিএসএফ ওই নাগরিকদের ফেরত নিতে রাজি হয়নি। আটকের সময় তাদের কাছে ভারতীয় জাতীয় পরিচয়পত্র, ইনকাম টেক্সের কাগজপত্র, একটি মুঠোফোন এবং নগদ ২ হাজার ৪০০টাকা পাওয়া গেছে।

আদালতে বিধান চন্দ্র দাশ এই প্রতিবেদককে জানায়, তাঁদের পৈতৃক বাড়ি নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর জব্বার থানার চর ভাটা গ্রামে। দুই ভাই ভারতের আসামে থাকেন এবং দুই ভাই বাংলাদেশে পৈতৃক বাড়িতেই থাকেন। তাঁরা পৈতৃক বাড়িতে বেড়ানোর উদ্দেশে আসছিলেন। তবে পাসপোর্ট ও ভিসা না করে অবৈধ পথে আসার কারণে গ্রেপ্তার হয়েছেন।

ফেনীর ৪ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. নাহিদুজ্জামান অনুপ্রবেশের অপরাধে নারী শিশুসহ তিন ভারতীয় নাগরিককে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।