অর্থ ও বাণিজ্য ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ০৭:৫৩

ফের অস্থিতিশীল পেঁয়াজের বাজার

ডেস্ক রিপোর্ট 

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে গত ১৮ দিন ধরে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রয়েছে। এদিকে, পুরনো এলসির বিপরীতে রফতানি করা পেঁয়াজের মজুদ শেষ এবং প্রয়োজন অনুযায়ী বাজারে পেঁয়াজ সরবরাহ না থাকায় হিলিতে ফের অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে পেঁয়াজের বাজার।

গত ৩ দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ১৫/২০ টাকা বেড়েছে। ৩ দিন আগেও পেঁয়াজ ৫০/৫৫ টাকা বিক্রি হলেও এখন তা বেড়ে ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজ আমদানি না হলে দাম ফের বাড়তে পারে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

হিলির পেঁয়াজ পাইকাররা জানান, কয়েকদিন আগে হিলি থেকে পেঁয়াজ কিনেছিলেন ৪০-৪৫ টাকা কেজি দরে। এখন তা কিনতে হচ্ছে ৭০ টাকা কেজি দরে। আর যেসব পেঁয়াজ খারাপ, সেগুলো বস্তা ২০০-৩০০ টাকা দরে কিনলেও এখন সেই পেঁয়াজ ২০-২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে করে আমাদের কিনতেও যেমন সমস্যা, তেমনি বিক্রি করতেও সমস্যা হচ্ছে।

হিলি বাজারের খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতারা জানান, যেমন দামে পেঁয়াজ কিনি তার সঙ্গে কিছু লাভ করে তা বিক্রি করি। মঙ্গলবার ৬৫ টাকা কিনেছি, যা বুধবার ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। 

হিলি স্থলবন্দর আমদানি রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন-উর রশীদ হারুন বলেন, পেঁয়াজ রফতানির বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও সিন্ধান্ত হয়নি। ভারত পেঁয়াজ রফতানি না করলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দামের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে। ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় ফের পেঁয়াজের দাম বাড়তে শুরু করেছে।