সোশ্যাল মিডিয়া ২৮ জুলাই, ২০১৯ ০৬:০৭

বাংলাদেশের বাজারে এসেছে নোকিয়ার সর্বাধুনিক দুই স্মার্টফোন

বাংলাদেশের বাজারে আরও নতুন দু’টি সর্বাধুনিক স্মার্টফোন নিয়ে এসেছে নোকিয়া। ৩.২ এবং নোকিয়া ২.২ মডেলের স্মার্টফোন দু’টি দেশের বাজারে ছেড়েছে ব্র্যান্ডটির নির্মাণ সংস্থা এইচএমডি গ্লোবাল।

নোকিয়া ৩.২ দিচ্ছে দুই দিনের ব্যাটারি লাইফসহ ৬.২৬ ইঞ্চির সবচেয়ে বড় এইচডি প্লাস ডিসপ্লে যার মাধ্যমে প্রিয় মুভি, টিভি শো কিংবা অনলাইন স্ট্রিমিং দেখা যাবে চোখের ওপর বাড়তি চাপ প্রয়োগ ছাড়াই। অপরদিকে, নোকিয়া ২.২ ফোনটিতে থাকছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন লোলাইট ইমেজিং প্রযুক্তি, যা অত্যন্ত সাশ্রয়ী দামেই দেবে স্বল্প আলোতে ডিটেইল ছবি তোলার সুবিধা। এই ক্যামেরাটি একসঙ্গে একাধিক ছবি তোলে এবং অ্যাডভান্সড অ্যালগরিদম ব্যবহার করে সেই ছবিগুলোর সমন্বয়ে তৈরি করে একটি অসাধারণ ইমেজ।

আর এর এইচডিআর ফটোগ্রাফি দেবে প্রাণবন্ত ছবি যার প্রতি শটেই পাওয়া যাবে ডায়নামিক রেঞ্জ। অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই চালিত নোকিয়া ৩.২ এবং নোকিয়া ২.২ এ দু’টি স্মার্টফোনই অ্যান্ড্রয়েড কিউ রেডি এবং দুই বছর পর্যন্ত অপারেটিং সিস্টেম আপগ্রেড পাবে। এছাড়া তিনবছর পর্যন্ত প্রতি মাসে পাবে সিকিউরিটি আপডেট যা নিশ্চিত করবে অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ উদ্ভাবনগুলো। দু’টি স্মার্টফোনেই রাখা হয়েছে ডেডিকেটেড গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বাটন, যার মাধ্যমে সাশ্রয়ী দামের দু’টি ফোনেই পাওয়া যাবে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের অসাধারণ অভিজ্ঞতা।

 

কোয়ালকম® স্ন্যাপড্রাগন™ ৪২৯ মোবাইল প্ল্যাটফর্মের নোকিয়া ৩.২স্মার্ট ফোনটি পাওয়া যাবে ৩ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি মেমোরিসহ। নোকিয়া ২.২-এর থাকছে কোয়াডকোর মিডিয়াটেক এ২২ চিপসেট। এটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যা ব্যাটারি অপটিমাইজেশনের মাধ্যমে সারাদিন চার্জ নিশ্চিত করবে।

স্মার্টফোন দু’টির উন্মোচন অনুষ্ঠানে এইচএমডি গ্লোবাল বাংলাদেশের হেড অব বিজনেস ফারহান রশিদ বলেন, আমরা বিশ্বাস করি মোবাইল প্রযুক্তির সর্বশেষ এবং অসাধারণ উদ্ভাবনগুলো থাকা উচিত সবার হাতের নাগালে। নোকিয়া ২.২এর ফিচারগুলোর মধ্যে আছে বায়োমেট্রিক ফেস আনলক, এআই ইমেজিং, সেলফি নচ, গুগল লেন্স এবং ডেডিকেটেড গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বাটন, এসব ফিচারের মাধ্যমে ফোন ব্যবহারের পদ্ধতিতে আমরা আমূল পরিবর্তন আনতে চাই।

 

এছাড়াও তিনি আরও বলেন, নোকিয়া ৩.২ স্মার্টফোনে আছে এখনও পর্যন্ত আমাদের স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় ডিসপ্লে এবং এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন কাজ সেরে নিতে পারবেন চোখের ওপর বাড়তি চাপ ছাড়াই। নিরাপত্তার জন্য ফোনটির পেছনে থাকছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। এছাড়াও এই ফোনে থাকছে নোটিফিকেশন লাইট, প্রতিটি নোটিফিকেশনের খবর দেবে এটি। ফলে একজন ব্যবহারকারী সহজেই বুঝতে পারবেন কখন ফোন আনলক করতে হবে এবং অ্যাপ চেক করতে হবে।

দু’টি ফোনই পাওয়া যাবে সেরা দামে। নোকিয়া ৩.২ (৩/৩২জিবি) ১৩ হাজার ৪৯৯ টাকায়, নোকিয়া ২.২ (২/১৬ জিবি) ১০ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং নোকিয়া ২.২ (৩/৩২জিবি) ১২ হাজার ৯৯৯ টাকায় কেনা যাবে।

দেশের বাজারে নোকিয়া ৩.২ পাওয়া যাবে এক্সক্লুসিভলি শুধুমাত্র দারাজ.কমে। অন্যদিকে ১৬ জুলাই, ২০১৯ থেকে দেশজুড়ে বিভিন্ন স্টোরে পাওয়া যাবে নোকিয়া ২.২।

স্মার্টফোন দু’টির উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাকিবুল কবির, দারাজ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক, এইচএমডি গ্লোবাল, বাংলাদেশের মার্কেটিং লিড ইফফাত জহুরসহ আরও অনেকে।