নারীমেলা ৮ মার্চ, ২০২০

মোমের আলোয় আঁধার ভাঙার শপথ নিল নারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ।। 

‘প্রজন্ম হোক সমতার, নিশ্চিত হোক নারী অধিকার’ স্লোগানকে কণ্ঠে ধারণ করে মোমবাতির আলো জ্বালিয়ে মনের আঁধার ভাঙার শপথ নিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী শিক্ষার্থীরা। একইসঙ্গে নারী পুরুষের সমঅংশীদারিত্ব নিশ্চিতের পাশাপাশি প্রতিটি স্থান, সময় ও মুহুর্তকে নারীর জন্য নিরাপদ করার জোরালো দাবি জানিয়েছেন তারা।

গতকাল শনিবার রাত বারোটা এক মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে এই শপথ নেন তারা। নারী দিবস উপলক্ষে প্রথম প্রহরেই ‘আমরাই পারি পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোট’ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান, আমরাই পারি জোটের উপদেষ্টা ও ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহফুজা খানম, আমরাই পারি জোটের কো-চেয়ারপার্সন শাহীন আনামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় শতাধিক নারী শিক্ষার্থী। এর আগে সাড়ে দশটায় বিভিন্ন হল থেকে শহীদ মিনারের পাদদেশে নারী শিক্ষার্থীরা এসে জড়ো হয়। পরে রাত বারোটা এক মিনিটে মোমবাতির আলো জ্বালিয়ে নারীর মনের আধার ভাঙার শপথ নেন। শপথ পাঠ করেন মাহফুজা খানম। 

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, আমরা এদেশের অন্ধকার দূর করতে চাই, অন্ধকার নারীকে পিছনে ফেলছে, পিছিয়ে দিচ্ছে সেই আঁধার দূর করবো। নারী ছাড়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যায়া সম্ভব নয়। মুজিববর্ষের প্রাক্কালে এই  হোক আমাদের অঙ্গীকার। নারীরা আজ এগিয়ে যাচ্ছে প্রাইমারি স্কুলে, খেলার মাঠে। বহি:বিশ্ব থেকে সম্মান বয়ে নিয়ে আসছে। নারীর প্রতি সহিংসতা, বাল্যবিবাহ নিয়ে পুরুষদেও সাথে নিয়ে একসাথে কাজ করতে হবে এইটাই হোক প্রতিজ্ঞা। 

আরও পড়ুন: ‘শিক্ষার উন্নয়নে বরাদ্দ বাড়াতে হবে’

অধ্যাপক মো আখতারুজ্জামান বলেন, যেসব বিষয়ে নারীরা নির্যাতনের শিকার হয় সেসব বিষয়ে সজাগ দৃষ্টি রেখে আমাদের সচেতন হতে হবে। শুধু আজকের নারী দিবস উদযাপন নয় প্রতিটি দিন হোক নারীর জন্য আঁধার মুক্ত। শিক্ষিত হওয়ার ফলে সকল ক্ষেত্রে নারী তার অধিকার আদায়ের ক্ষেত্রে আরও বেশি সােচ্চার হতে পারছে। মুক্তিযুদ্ধে নারী পুরুষের সমান অংশগ্রহণে যেমন স্বাধীনতা অর্জন করেছিল সেই সফলতা বর্তমানে প্রতিটি নারী-পুরুষ পায় সেই বার্তাই দেয়া আমরাই পারি। বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের সুযােগ সুবিধার বিষয়টি তিনি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবেন বলে উল্লেখ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

আবু সৈয়দ ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ।।