অর্থ ও বাণিজ্য ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৪:৪৫

দর কমেছে ১৮৫টি কোম্পানির

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে নেতিবাচক প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে। এদিন ডিএসইতে সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারের দর কমায় সূচকের সঙ্গে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কমেছে। এদিন মোট ৩৫৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৮৪টির এবং কমেছে ১৮৫টির। বাকি ৮৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ৯৭৫ কোটি ৫১ লাখ ৫৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ১৩৭ কোটি ৩৪ লাখ ৫২ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। অর্থাৎ লেনদেন কমেছে ১৬১ কোটি ৮২ লাখ ৯৭ হাজার টাকা। এদিন ২৯ কোটি এক লাখ ৯২ হাজার ৯৪৬টি শেয়ার এক লাখ ৭৪ হাজার ৪২১ বার হাতবদল হয়। গতকাল শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৬ দশমিক ৭১ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৩২ শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ৯৮ দশমিক ৪৮ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৪ দশমিক ৯১ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৪১ শতাংশ কমে এক হাজার ১৭৭ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ৫ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৩১ শতাংশ কমে এক হাজার ৮১২ দশমিক ৫২ পয়েন্টে স্থির হয়। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন দুই হাজার ২৯ কোটি ৪২ লাখ ৭১ হাজার টাকা কমে দাঁড়িয়েছে চার লাখ ১৩ হাজার ৩ কোটি ৫১ লাখ ৯ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির ৯০ কোটি ৪০ লাখ ৩২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৬০ পয়সা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৫৮ কোটি ৬৬ লাখ ৭৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর এক টাকা ১০ পয়সা কমেছে। রূপালী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৩২ কোটি দুই লাখ ছয় হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর চার টাকা ২০ পয়সা বেড়েছে।

এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের ২৯ কোটি ৭২ লাখ ৯২ হাজার টাকার, ফরচুন শুজ লিমিটেডের ২৮ কোটি ৬৯ লাখ ৫১ হাজার টাকার, ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ২৭ কোটি ২৩ লাখ ৪৭ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ২৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকার, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের ২৩ কোটি ৯৫ হাজার টাকার, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২১ কোটি ১৯ লাখ ৩৯ হাজার টাকার এবং পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১৯ কোটি ৬৪ লাখ ৮৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

৫০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে ছিল ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৫ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। রূপালী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৫ শতাংশ, ফরচুন শুজ লিমিটেডের ৮ দশমিক ৪৯ শতাংশ, নর্দার্ন ইসলামী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৬ দশমিক ৮০ শতাংশ, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স বাংলাদেশ লিমিটেডের ৫ দশমিক ৮৪ শতাংশ, এনভয় টেক্সটাইলস লিমিটেডের ৪ দশমিক ৫৪ শতাংশ এবং পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৪ দশমিক ৪৭ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ৪৯ দশমিক ৩৩ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫৫ শতাংশ কমে আট হাজার ৮৩৩ দশমিক ৬৭ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৮৪ দশমিক ২২ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫৭ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ৬৫৪ দশমিক ৪৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৬২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ৬৬টির, কমেছে ১৪৬টির এবং ৫০টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৭ কোটি ৮৬ লাখ ৫৬ হাজার ৪৯৭ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২৮ কোটি ৬৩ লাখ ৩৫ হাজার ৭৯৭ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৯ কোটি ২৩ লাখ ২০ হাজার ৭০০ টাকার।

সিএসইতে এদিন লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড। কোম্পানিটির ৫ কোটি ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৫ কোটি এক লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৩ কোটি ৬০ লাখ ৪০ হাজার টাকার, রানার অটোমোবইলস লিমিটেডের ৩ কোটি ৩২ লাখ ৬০ হাজার টাকার, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ২ কোটি ৫৪ লাখ ৪০ হাজার টাকার, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২ কোটি ১৯ লাখ টাকার, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের এক কোটি ৩৫ লাখ ৯০ হাজার, ডমিনেজ স্টিল বিল্ডিং সিস্টেমস লিমিটেডের এক কোটি ১৮ লাখ টাকার এবং ফরচুন শুজ লিমিটেডের এক কোটি ১১ লাখ ৪০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।