অর্থ ও বাণিজ্য ১৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৮:৫৮

রাজবাড়ীতে আলু উধাও

অলস সময় কাটাতে লুডু খেলছে শ্রমিকেরা

অলস সময় কাটাতে লুডু খেলছে শ্রমিকেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকার নির্ধারিত মূল্যের থেকে বেশি দামে কেনা এবং জরিমানার ভয়ে আলু আমদানি করছে না রাজবাড়ীর আড়তদাররা। যার ফলে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে না আলু। এতে বিপাকে ক্রেতারা।

রাজবাড়ীর বড় পাইকারী কাঁচা বাজারে কয়েকদিন ধরে বন্ধ রয়েছে আলুর বেচা-কেনা। ফলে পাইকারী ও খুচরা বাজারে কোথাও মিলছেনা আলু। আলু আমদানি-রফতনি বন্ধ থাকার কারনে শ্রমিকরা পাড় করছেন অলস সময়। এছাড়া খুচরা বাজারেও আলু নেই।

ক্রেতা আব্দুর রশিদ জানান, অনেকে কাঁচা বাজার করতে এসেছেন। কিন্তু বেশ কয়েকটি দোকান ঘুরেও আলু পায়নি। আলু তো প্রয়োজনীয় সবজি। সরকার ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে সমন্বয় না হলে ক্রেতাদের হয়রানি আরও বাড়বে।

আড়তের শ্রমিক সরদার খবির শেখ জানান, প্রতিদিন আলু লোড-আনলোড করতাম। দাম বেশি হওয়ায় কয়েকদিন আড়তে আলু আসছে না। আর আলু না আসায় রোজগার বন্ধ রয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে না খেয়ে মরতে হবে। তার মত আরো ১৫ শ্রমিকের একই অবস্থা বলে জানান তিনি।

আড়তদার মোস্তাক আহম্মেদ জানান, সরকারের বেঁধে দেয়া দামে মোকাম থেকে আলু কেনা যাচ্ছে না। যে কারণে আলু আমদানি বন্ধ রাখা হয়েছে। বেশি দামে কিনলে তো বেশি দামেই বিক্রি করতে হবে। কিন্তু বেশি দামে বিক্রি করলে প্রশাসন জরিমানা করে। তাই লোকসান দিয়ে ব্যবসা না করতেই আলু আমদানি বন্ধ রাখা হয়েছে।

রাজবাড়ী জেলা শহরের বড় পাইকারী কাঁচা বাজারের সাধারণ সম্পাদক আমান ট্রেডার্সের মো. আলতাফ হোসেন চৌধুরী বলেন, সরকার নির্ধারণ করেছে আড়তে ৩০ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করতে হবে। কিন্তু মোকাম থেকে কিনতে হয় ৪০-৪২ টাকায়। যে কারণে আলু বাজারে আনা হচ্ছে না। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বিক্রি করলে প্রতিদিন কয়েক লাখ টাকা লোকসান হবে।