রাজনীতি ২৩ অক্টোবর, ২০২০ ০৫:৪৪

উত্তরায় বিএনপির দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, আহত ১৫ 

নিজস্ব প্রতিবেদক 

ঢাকা-১৮ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনের গণসংযোগ মিছিলে পেছন থেকে ধাওয়া দিয়েছে বিরোধী পক্ষ। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় উভয় পক্ষের ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ শুক্রবার উত্তরা-৭ নম্বর সেক্টরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ের পর গণসংযোগ শুরু করেন ধানের শীষের প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন। এ সময় তার সঙ্গে দুই-তিন হাজার নেতাকর্মী ছিলেন। গণসংযোগ শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য দেন জাহাঙ্গীর। পরে তারা মিছিল নিয়ে রবীন্দ্র সরণি হয়ে সামনের দিকে অগ্রসর হলে পেছন থেকে বিএনপির আরেক পক্ষ লাঠি নিয়ে ধাওয়া দেয়। জাহাঙ্গীরের সমর্থক নেতাকর্মীরাও পাল্টা ধাওয়া দেন। তবে এই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ৫/৬ মিনিটের মধ্যেই শেষ হয়ে যায়। 

ঢাকা-১৮ আসনে যারা বিএনপির মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হয়েছেন এবং গত ১২ সেপ্টেম্বর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের সামনে জাহাঙ্গীরের সমর্থকদের হামলায় আহত হয়েছিলেন তারাই এদিন গণসংযোগে ধাওয়া দিয়েছেন বলে জাহাঙ্গীরের কর্মীদের। ধাওয়া দেওয়া কর্মীদের সঙ্গে থাকা ব্যানারে লেখা ছিল- ‘১২ সেপ্টেম্বর গুলশানে হামলার ঘটনার বিচার চাই। জাহাঙ্গীরের বহিষ্কার চাই।’ 

দলের মনোনীত প্রার্থীর গণসংযোগে ধাওয়া দেওয়া কর্মীদের নেতৃত্বে ছিলেন বিএনপি থেকে সদ্য বহিষ্কৃত নেতা নাজিম উদ্দিন দেওয়ান, আমজাদ হোসেন ও মতিউর রহমান। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মতিউর রহমান বলেন, সন্ত্রাসী ও ঘর জামাই জাহাঙ্গীরে বহিষ্কার দাবি করে আমরা প্রার্থীর মিছিলের শেষভাগে কালো পতাকা প্রদর্শন করে এগিয়ে যাওয়ার এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।